করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা - সকল গেজেট এক ঠিকানায় || All gazettes are in one site.

করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা


করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কবার্তাকরোনা ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা। সম্মানীত ভিজিটর, সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র সমৃদ্ধ এ বাংলা ব্লগ সাইটে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। অনুগ্রহপূর্বক, পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন।

প্রিয় পাঠক, আপনি যদি আমার এই অলগেজেটস ডট কম সাইটে নতুন এসে থাকেন; তাহলে, সাইটে প্রতিনিয়ত প্রকাশিত নতুন পোষ্টের আপডেট পেতে-প্লিজ, সাইটের ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে সাইটটির
সঙ্গেই থাকুন। আর যদি ইতোমধ্যে আপনি “ফেজবুক পেজে” লাইক দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে আবারও স্বাগত জানাচ্ছি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র একত্রে, একসঙ্গে পাবার এ পাঠকপ্রিয় বাংলাদেশী বাংলা ব্লগে। আশা করি, পরবর্তীতে আবারও এসে ধন্য করবেন “সকল গেজেট এক ঠিকানায়” শিরোনামের এ বাংলা ব্লগে।

পাঠক, আপনাদের সকলের চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে এ ব্লগে আয়োজন করেছি-প্রাথমিক শিক্ষার অফিস আদেশ ও পত্র, প্রাথমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, উচ্চ শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, শিক্ষকদের বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, শিক্ষকদের পেশাগত প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রজ্ঞাপন ও পত্র, পাঠ্য বইয়ের ই-সংষ্করণ, ধর্মীয় ই-বুকসমূহ, আইন ও বিধিমালার ই-বুকসমূহ, জাতীয় পরিচয় পত্র বিষয়ক প্রজ্ঞাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের প্রজ্ঞাপন ও পত্র, জাতীয় বেতন স্কেলসমূহ, বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার প্রজ্ঞাপন ও পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি-বেসরকারি গুরূত্বপূর্ণ গেজেট, পরিপত্র ও পত্রাদি। এবার আসা যাক, আজকের পোষ্টের কথায়।

--------------------------------------------------
আরও দেখুন-
--------------------------------------------------

করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা।


গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর, ঢাকা থেকে করোনা ভাইরাস সম্পর্কে এক সতর্ক বার্তায় জানানো হয় যে, সরকার ইতোমধ্যে ভাইরাস সংক্রমণরোধে ও এ রোগে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসার্থে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। এ বিষয়ে সংশ্লিষ্ট সকলের সচেতনতা ও সর্তকতা অবলম্বন করা প্রয়োজন। প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরাধীন সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষিকাসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে নিম্নরূপ নির্দেশনা ও পরামর্শ অনুসরণের জন্য অনুরোধ করা হলো। বিশেষ করে বিদ্যালয়গুলোতে প্রধান শিক্ষকগণকে শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রদত্ত নির্দেশনা ও পরামর্শ পাঠ করে শোনানোসহ এ ভাইরাস সংক্রান্ত পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ এবং প্রতিরোধে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা হলো।







করোনা ভাইরাস যেভাবে ছড়ায়

 (১) এ ভাইরাস কোন প্রাণী থেকে মানুষের দেহে ঢুকে থাকে,

 (২) এখন মানুষ থেকে মানুষে সংক্রমণিত হয়।

 (৩) করোনা ভাইরাস মানুষের ফুসফুসে সংক্রমণ ঘটায়;

 (৪) শ্বাসতন্ত্রের মাধ্যমে (হাঁচি/কাশি/কফ/থুথু) এবং 

 (৫) আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে আসলে একজন থেকে আরেক জনের মধ্যে ছড়ায়।

করোনা ভাইরাসের লক্ষণসমূহ:


(১) ভাইরাস শরীরে ঢোকার পর সংক্রমণের লক্ষণ দেখা দিতে প্রায় ২-১৪ দিন লাগে 


(২) বেশির ভাগ ক্ষেত্রে প্রথম লক্ষণ জ্বর

 (৩) এছাড়া শুকনো কাশি/গলা ব্যথা হতে পারে,

 (৪) শ্বাসকষ্ট/নিউমোনিয়া দেখা দিতে পারে।

 (৫) অন্যান্য অসুস্থতা (ডায়াবেটিস/উচ্চ রক্তচাপ/শ্বাসকষ্ট/হদরোগ/কিডনী সমস্যা/ক্যান্সার ইত্যাদি) থাকলে অরগ্যান ফেইলিওর বা দেহের বিভিন্ন প্রত্যঙ্গ বিকল হতে পারে।








এটি প্রতিরোধে করণীয়:


 ১. ব্যক্তিগত সচেতনতা:-

 (১) ঘন ঘন সাবান ও পানি নিয়ে হাত ধুতে হবে (অন্তত ২০ সেকেন্ড যাবৎ)

 (২) অপরিষ্কার হাতে চোখ, নাক ও মুখ স্পর্শ করা যাবে না।

 (৩) ইতোমধ্যে আক্রান্ত এমন ব্যক্তিদের সংস্পর্শ এড়িয়ে চলতে হবে।

 (৪) কাশি শিষ্টাচার মেনে চলতে হবে (হাঁচি/কাশির সময় বাহু/টিসু/কাপড় দিয়ে নাক-মুখ ঢেকে রাখতে হবে)।

 (৫) অসুস্থ পশু/পাখির সংস্পর্শ পরিহার করতে হবে,

 (৬) মাছ-মাংস ভালোভাবে রান্না করে খেতে হবে। 

 (৭) অসুস্থ হলে ঘরে থাকতে হবে, বাইরে যাওয়া অত্যাবশ্যক হলে নাক-মুখ ঢাকার জন্য মাস্ক ব্যবহার করতে হবে। 

(৮) জরুরী প্রয়োজন ব্যতীত বিদেশে ভ্রমণ করা থেকে বিরত থাকুন এবং প্রয়োজন ব্যতীত এ সময়ে বাংলাদেশ ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করতে হবে।

 (৯) প্রবাসী আত্বীয় স্বজনকে জরুরী প্রয়োজন ছাড়া বাংলাদেশ ভ্রমণে নিরুৎসাহিত করতে হবে। 

করোনা ভাইরাস নিয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সতর্কবার্তা

 (১০) প্রয়োজন ছাড়া যে কোন জনসমাগম এড়িয়ে চলতে হবে।

(১১) অত্যাবশ্যকীয় ভ্রমণে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে।


 ২. সন্দেহভাজন রোগীর ক্ষেত্ত্রে করণীয়:

 

(১) অসুস্থ রোগীকে ঘরে থাকতে বলুন,

 (২) মারাত্বক অসুস্থ রোগীকে নিকটস্থ হাসপাতালে যেতে বলুন,

 (৩) রোগীকে নাক-মুখ ঢাকার জন্য মাস্ক ব্যবহার করতে বলুন 

 (৪) রোগীর নাম, বয়স, যোগাযোগের পূর্ণ ঠিকানা ও মোবাইল নম্বর সংরক্ষণ করুন এবং 

 (৫) আইইডিসিআর এর করোনা কন্ট্রোল রুমে (১৭০০-৭০৫৭৩৭) অথবা

হটলাইন নম্বরে (০১৯৩৭-১১০০১১, ০১৯৩৭০০০০১১, ০১৯২৭-৭১১৭৮৪, ০১৯২৭-৭১১৭৮৫)যোগাযোগ করুন। 

 (৬) করোনা ভাইরাস সম্পর্কে ভালোভাবে জানুন এবং অপরকে জানান। বিষয়টি অতীব জরুরী।


পোস্টের নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন।

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে নিচের ফেসবুক, টুইটার বা গুগল প্লাসে
শেয়ার করে আপনার টাইমলাইনে রেখে দিন। এতক্ষণ সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ।





কোন মন্তব্য নেই

pollux থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.