শিশুদের নিজ ওজনের ১০% এর বেশি ওজনের ব্যাগ বহন নিষেধে পত্র: - সকল গেজেট এক ঠিকানায় || All gazettes are in one site.

শিশুদের নিজ ওজনের ১০% এর বেশি ওজনের ব্যাগ বহন নিষেধে পত্র:


শিশুদের নিজ ওজনের ১০% এর বেশি ওজনের ব্যাগ বহন নিষেধে পত্র/Children are not allowed to wear bags weight more than 10% of their weight.

সম্মানীত ভিজিটর, সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র সমৃদ্ধ এ বাংলা ব্লগ সাইটে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। অনুগ্রহপূর্বক, পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন।
প্রিয় পাঠক, আপনি যদি আমার এই অলগেজেটস ডট কম সাইটে নতুন এসে
থাকেন; তাহলে, সাইটে প্রতিনিয়ত প্রকাশিত নতুন পোষ্টের আপডেট পেতে-প্লিজ, সাইটের ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে সাইটটির সঙ্গেই থাকুন। আর যদি ইতোমধ্যে আপনি “ফেজবুক পেজে” লাইক দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে আবারও স্বাগত জানাচ্ছি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র একত্রে, একসঙ্গে পাবার এ পাঠকপ্রিয় বাংলাদেশী বাংলা ব্লগে। আশা করি, পরবর্তীতে আবারও এসে ধন্য করবেন “সকল গেজেট এক ঠিকানায়” শিরোনামের এ বাংলা ব্লগে।





পাঠক, আপনাদের সকলের চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে এ ব্লগে আয়োজন করেছি-প্রাথমিক শিক্ষার অফিস আদেশ ও পত্র, প্রাথমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, উচ্চ শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, শিক্ষকদের বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, শিক্ষকদের পেশাগত প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রজ্ঞাপন ও পত্র, পাঠ্য বইয়ের ই-সংষ্করণ, ধর্মীয় ই-বুকসমূহ, আইন ও বিধিমালার ই-বুকসমূহ, জাতীয় পরিচয় পত্র বিষয়ক প্রজ্ঞাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের প্রজ্ঞাপন ও পত্র, জাতীয় বেতন স্কেলসমূহ, বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার প্রজ্ঞাপন ও পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি-বেসরকারি গুরূত্বপূর্ণ গেজেট, পরিপত্র ও পত্রাদি। এবার আসা যাক, আজকের পোষ্টের কথায়।
--------------------------------------------------
আরও দেখুন-
--------------------------------------------------
আজকের শিশু আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। সুস্থ্য, সুন্দর শিশু সকলেরই কাম্য। শিশুরা শিক্ষালয়ে সুস্থ্য-সুন্দর পরিবেশে লেখাপড়া করে বড় হবে সেটি বোধ হয় সবারই চাওয়া। বর্তমানে প্রাথমিক বিদ্যালয়েযে সমস্ত শিশুরা অধ্যয়ন করে তাদের জন্য সরকার নির্ধারিত পাঠ্য বই মোট ছয়টি। ছয়টি পাঠ্যবই ও তাদের জন্য খাতা-পত্র ও অন্যান্য উপকরণসহ এদের মোট ওজন সর্বোচ্চ দু-তিন কেজির বেশি হবার কথা নয়।

কিন্তু বাস্তবে কী দেখা যায়। শিশুরা পাঠ্য-পুস্তক, নোট-গাইড আর আনুষঙ্গিক জিনিসে ভরা ছয়-সাত কেজি ওজনের একটি বিশাল স্কুল ব্যাগ কাঁধে চাপিয়ে মেনুদন্ড বাঁকা করে স্কুলে যায় এখনকার প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিশুরা, যা অনাকাঙ্খিত। সে কারনেই বোধ হয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের একটি পত্রে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিশুদের নিজ ওজনের ১০% এর  বেশি ওজনের ব্যাগ বহন নিষিদ্ধ করে ছাত্র অভিভাবকদের অবহিত করবার জন্য বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষক ও এস.এম.সি সদস্যদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে। পত্রে বলা হয়েছে-জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্য পুস্তক বোর্ড, প্রাথমিক বিদ্যালয়গামী শিশুদের জন্য যে সমস্ত পাঠ্য বই অনুমোদন করেছে, তা পরিবহনে কোন ছেলে-মেয়েদের সমস্যা হবার কথা নয়। যে সমস্ত ছেলে-মেয়েরা ব্যাগে বই বহন করে বিদ্যালয়ে আসা-যাওয়া করে মহামান্য হাইকোর্ট বিভাগের রীট পিটিশন নং ৮২৫২/২০১৫ এর রায় অনুযায়ী তার ওজন বিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত শিশুর ওজনের ১০% (এক দশমাংশের) বেশি না হয়, সে বিষয়ে সতর্ক হওয়া বাঞ্ছনীয়। ভারী ব্যাগ বহনের কারণে যাতে পিঠে ব্যাথা বা সোজা হয়ে দাঁড়ানোর মত সমস্যা দেখা না দেয় সে জন্য অনুমোদিত বই, উপকরণ ব্যতীত অন্য কিছু ব্যাগে করে বিদ্যালয়ে বয়ে আনা নিরূৎমাহীত করতে হবে।





এমতবস্থায় প্রাথমিক স্তরের বিদ্যালয় সমূহের প্রধান শিক্ষকসহ সকল শিক্ষক, এস, এম, সি ও অভিভাবকগণ এ বিষয়টি নিশ্চিত করবেন।
উপরে আমরা প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর থেকে জারিকৃত পত্রের বক্তব্য পড়লাম। এ সমস্ত কোমলমতি শিশুদের শিক্ষার সঙ্গে যারা জড়িত আছেন, তারা সকলে যদি উপরোক্ত পত্রের নির্দেশনাটি মেনে চলেন, তাহলে আশা করা যায় সোজা মেরুদন্ডের সুস্থ্য, সবল শিশু আমাদের আগামী দিনে তৈরি হবে। 


উপরোক্ত পত্রটির সফট কপি পেতে এখানে ক্লিক করুন। 

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে লাইক ও শেয়ার করুন, প্লিজ।
গেজেটের নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের এ ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে রাখুন।




কোন মন্তব্য নেই

pollux থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.