প্রবাসী কর্মীর সন্তানরা শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ পাচ্ছে যেভাবে || Scholarship for children of migrant worker - সকল গেজেট এক ঠিকানায় || All gazettes are in one site.

প্রবাসী কর্মীর সন্তানরা শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ পাচ্ছে যেভাবে || Scholarship for children of migrant worker

প্রবাসী কর্মীর সন্তানরা শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ পাচ্ছে যেভাবে || Scholarship for children of migrant workerপ্রবাসী কর্মীর সন্তানরা শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ পাচ্ছে যেভাবেসম্মানীত ভিজিটর, সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র সমৃদ্ধ এ বাংলা ব্লগ সাইটে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। অনুগ্রহপূর্বক, পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন।
প্রিয় পাঠক, আপনি যদি আমার এই অলগেজেটস ডট কম সাইটে নতুন এসে থাকেন; তাহলে, সাইটে প্রতিনিয়ত প্রকাশিত
নতুন পোষ্টের আপডেট পেতে-প্লিজ, সাইটের ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে সাইটটির সঙ্গেই থাকুন। আর যদি ইতোমধ্যে আপনি “ফেজবুক পেজে” লাইক দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে আবারও স্বাগত জানাচ্ছি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র একত্রে, একসঙ্গে পাবার এ পাঠকপ্রিয় বাংলাদেশী বাংলা ব্লগে। আশা করি, পরবর্তীতে আবারও এসে ধন্য করবেন “সকল গেজেট এক ঠিকানায়” শিরোনামের এ বাংলা ব্লগে।
পাঠক, আপনাদের সকলের চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে এ ব্লগে আয়োজন করেছি-প্রাথমিক শিক্ষার অফিস আদেশ ও পত্র, প্রাথমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, উচ্চ শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, শিক্ষকদের বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, শিক্ষকদের পেশাগত প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রজ্ঞাপন ও পত্র, পাঠ্য বইয়ের ই-সংষ্করণ, ধর্মীয় ই-বুকসমূহ, আইন ও বিধিমালার ই-বুকসমূহ, জাতীয় পরিচয় পত্র বিষয়ক প্রজ্ঞাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের প্রজ্ঞাপন ও পত্র, জাতীয় বেতন স্কেলসমূহ, বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার প্রজ্ঞাপন ও পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি-বেসরকারি গুরূত্বপূর্ণ গেজেট, পরিপত্র ও পত্রাদি। এবার আসা যাক, আজকের পোষ্টের কথায়।







--------------------------------------------------
আরও দেখুন-



--------------------------------------------------

প্রবাসী কর্মীর সন্তানরা শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ পাচ্ছে যেভাবে

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের “ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড” থেকে ১০ ডিসেম্বর, ২০১৯ খ্রি: তারিখে “প্রবাসী কর্মীর সন্তানদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান সংক্রান্ত নীতিমালা-২০১৯” শিরোনামে একটি নীতিমালা তাদের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়েছে। নীতিমালায়  জানানো হয় যে, প্রবাসী বাংলাদেশী কর্মীরা দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে ব্যাপক ভূমিকা পালন করে থাকেন। প্রবার্সীদের প্রেরিত রেমিটেন্স অন্যতম চালিকাশক্তি হিসেবে দেশের অর্থনীতির চাকাকে বেগবান রাখছে। ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড প্রবাসী কর্মী এবং তাঁর পরিবারের জন্য নানামুখী কল্যাণমূলক সেবা কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড প্রবাসীদের অর্থবহ এবং টেকসই কল্যাণ নিশ্চিতকল্পে বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণের পাশাপাশি প্রবাসী কর্মীর মেধাবী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষা গ্রহণে উৎসাহ প্রদানের জন্য শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করছে। প্রবাসী কর্মীর সন্তানদের জন্য প্রদত্ত শিক্ষাবৃত্তি কার্যক্রম সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার লক্ষ্যে ০৫ ডিসেম্বর, ২০১৯ তারিখে অনুষ্ঠিত ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড পরিচালনা পরিষদের ২৯১তম বোর্ড সভার অনুমোদনক্রমে এই নীতিমালা প্রণয়ন করা হয়েছে।

এই নীতিমালা “প্রবাসী কর্মীর সন্তানদের শিক্ষা বৃত্তি প্রদান সংক্রান্ত নীতিমালা-২০১৯” নামে অভিহিত হবে।

উদ্দেশ্য: 

 

ক) প্রবাসী কর্মীদের অবদানের স্বীকৃতি প্রদান; 

খ) প্রবাসী কর্মীর মেধাবী সন্তানদের শিক্ষা গ্রহণে উৎসাহ প্রদান; 

গ) প্রবাসী কর্মীর মেধাবী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষায় শিক্ষিত করার প্রয়াসে সহায়তা প্রদান;

ঘ) দক্ষ মানব সম্পদ তৈরি করা; 

ঙ) বৈধভাবে বিদেশগমনে উৎসাহ প্রদান; 

চ) প্রবাসী কর্মীর পরিবারের টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা; 

ছ) প্রবাসী কর্মীর অধিকার ও মর্যাদা প্রতিষ্ঠা করা।

বৃত্তির আওতা:


জনশক্তি কর্মসংস্থান ও প্রশিক্ষণ ব্যুরো (বিএমইটি) এর ছাড়পত্র নিয়ে যে সকল কর্মী বিদেশে কর্মরত আছেন বা ছিলেন অথবা বিদেশে কর্মরত অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন অথবা ছুটিতে দেশে এসে মৃত্যুবরণ করেছেন অথবা নির্ধারিত কল্যাণ ফি জমা দিয়ে ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের মেম্বারশিপ গ্রহণ করেছেন, তাঁদের সন্তানেরা এই শিক্ষাবৃত্তির আওতায় আসবে। এছাড়াও মৃত কর্মীর জন্য দূতাবাস কর্তৃক ইস্যুকৃত এনওসিতে বৈধ উল্লেখ থাকলে অথবা ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ড হতে মৃত কর্মীর পরিবারকে আর্থিক অনুদান প্রদান করা হলে তাঁদের সন্তানগণও শিক্ষা বৃত্তির আওতাভুক্ত হবে।


প্রবাসী কর্মীর সন্তানরা শিক্ষা বৃত্তির সুযোগ পাচ্ছে যেভাবে || Scholarship for children of migrant worker








বৃত্তির জন্য আবেদন আহবান ও আবেদন জমা প্রদানের পদ্ধতি:


ক) আবেদন আহবান: ওয়েজ আর্নার্স কল্যাণ বোর্ডের ওয়েবসাইটে এবং পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে প্রতি বছর সংশ্লিষ্ট ক্যাটাগরিতে আবেদন আহবান করা হবে; 

খ) আবেদন আহবানের সময়: পিইসি/সমমান, জেএসসি/সমমান ও এইচএসসি/সমমান/ A Level ক্যাটাগরিতে জানুয়ারি মাসে, এসএসসি/সমমান/ O Level ক্যাটাগরিতে জুলাই মাসে আবেদনপত্র আহবান করা হবে; 

গ) আবেদন গ্রহণ: বৃত্তির আবেদনপত্র সরাসরি/ ডাকযোগে/অনলাইনে গ্রহণের বিষয়ে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ থাকবে।


বিশেষ শর্তাবলী:


ক) একজন প্রবাসী কর্মীর সর্বোচ্চ ২ (দুই) জন সন্তানকে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করা যাবে;

খ) এইচএসসি/সমমান/এলেভেল ক্যাটাগরিতে শুধুমাত্র পাবলিক কলেজ/বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যয়নরত প্রবাসী কর্মীর সন্তাদেরকে শিক্ষা বৃত্তি প্রদান করা হবে; 

বিবিধ:
বৃত্তি প্রদানের পর কোনো শিক্ষার্থীর আবেদন ও প্রদত্ত তথ্যে অনিয়ম, অসঙ্গতি ও ভুল প্রমাণিত হলে। কর্তৃপক্ষ বৃত্তি বাতিল/স্থগিত কিংবা আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারবে।


পোস্টের নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে লাইক দিয়ে রাখুন।

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে নিচের ফেসবুক, টুইটার বা গুগল প্লাসে
শেয়ার করে আপনার টাইমলাইনে রেখে দিন। এতক্ষণ সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ।





কোন মন্তব্য নেই

pollux থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.