সরকারিভাবে যে সমস্ত বাংলা শব্দের বানানরীতি পরিবর্তন করা হয়েছে, তার তালিকা - সকল গেজেট এক ঠিকানায় || All gazettes are in one site.

সরকারিভাবে যে সমস্ত বাংলা শব্দের বানানরীতি পরিবর্তন করা হয়েছে, তার তালিকা


সরকারিভাবে যে সমস্ত বাংলা শব্দের বানানরীতি পরিবর্তন করা হয়েছে, তার তালিকাসরকারিভাবে যে সমস্ত বাংলা শব্দের বানানরীতি পরিবর্তন করা হয়েছে, তার তালিকা। সম্মানীত ভিজিটর, সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র সমৃদ্ধ এ বাংলা ব্লগ সাইটে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি। অনুগ্রহপূর্বক, পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন।
প্রিয় পাঠক, আপনি যদি আমার এই অলগেজেটস ডট কম সাইটে নতুন এসে থাকেন; তাহলে, সাইটে প্রতিনিয়ত প্রকাশিত নতুন পোষ্টের আপডেট পেতে-প্লিজ, সাইটের ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে সাইটটির
সঙ্গেই থাকুন। আর যদি ইতোমধ্যে আপনি “ফেজবুক পেজে” লাইক দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে আবারও স্বাগত জানাচ্ছি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র একত্রে, একসঙ্গে পাবার এ পাঠকপ্রিয় বাংলাদেশী বাংলা ব্লগে। আশা করি, পরবর্তীতে আবারও এসে ধন্য করবেন “সকল গেজেট এক ঠিকানায়” শিরোনামের এ বাংলা ব্লগে।





পাঠক, আপনাদের সকলের চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে এ ব্লগে আয়োজন করেছি-প্রাথমিক শিক্ষার অফিস আদেশ ও পত্র, প্রাথমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, উচ্চ শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, শিক্ষকদের বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, শিক্ষকদের পেশাগত প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রজ্ঞাপন ও পত্র, পাঠ্য বইয়ের ই-সংষ্করণ, ধর্মীয় ই-বুকসমূহ, আইন ও বিধিমালার ই-বুকসমূহ, জাতীয় পরিচয় পত্র বিষয়ক প্রজ্ঞাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের প্রজ্ঞাপন ও পত্র, জাতীয় বেতন স্কেলসমূহ, বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার প্রজ্ঞাপন ও পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি-বেসরকারি গুরূত্বপূর্ণ গেজেট, পরিপত্র ও পত্রাদি। এবার আসা যাক, আজকের পোষ্টের কথায়।
--------------------------------------------------
আরও দেখুন-
--------------------------------------------------
সরকারিভাবে যে সমস্ত বাংলা শব্দের বানানরীতি পরিবর্তন করা হয়েছে, তার তালিকা। মাতৃভাষার জন্য আত্মত্যাগের ইতিহাসে বাঙালির তুলনা বিশ্ব-ইতিহাসে নেই। মাতৃভাষার মর্যাদা রক্ষার রক্তাক্ত পথ বেয়ে বাংলাদেশ আজ স্বাধীন রাষ্ট্র। বাংলা আমাদের রাষ্ট্রভাষা। কেন্দ্র থেকে তৃণমূল পর্যন্ত সকল দপ্তর ও সংস্থায় বাংলা ভাষা ব্যবহার হচ্ছে। ইতোমধ্যে বাংলা ভাষা প্রচলন আইন, ১৯৮৭ জারি করা হয়েছে।





সরকারি কাজে বাংলা ভাষা ব্যবহারের ক্ষেত্রে কিছু সমস্যা রয়েছে। যথাযথ পরিভাষার অভাব ও বানানরীতির ভিন্নতার কারণে ব্যবহারিক ভাষায় অসামঞ্জস্য পরিলক্ষিত হয়। প্রমিত ভাষারীতি সম্পর্কে কর্মকর্তাগণ অবহিত না থাকার কারণে ভাষার শুদ্ধতা সকল ক্ষেত্রে রক্ষা করা সম্ভব হয়ে উঠছে না। বিষয়টি মন্ত্রিসভা বৈঠকেও আলোচিত হয়। তৎপ্রেক্ষিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মন্ত্রিসভার বৈঠকে সরকারি কাজে বাংলা ভাষা ব্যবহারের ক্ষেত্রে বাংলা একাডেমির প্রমিত বানানরীতি অনুসরণের অনুশাসন প্রদান করেন। তদনুযায়ী মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে ৩১ অক্টেবর ২০১২ তারিখে সরকারি কাজে বাংলা একাডেমির প্রমিত বাংলা বানানরীতি অনুসরণ’ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়।
উপযুক্ত প্রেক্ষাপটে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের বাংলা ভাষা বাস্তবায়ন কোষ বাংলা একাডেমির প্রমিত বানানরীতির অনুসরণে ‘সরকারি কাজে ব্যবহারিক বাংলা প্রণয়নের উদ্যোগ নেয়। প্রশাসনিক অনুমোদনের পর পাণ্ডুলিপিটি বাংলা একাডেমি কর্তৃক পরীক্ষা করা হয়েছে। এটি বই আকারে প্রকাশিত হলে বিভিন্ন সরকারি অফিসে বাংলা বানান নিয়ে যে অসামঞ্জস্য পরিলক্ষিত হয় তা দূর হবে।

সরকারিভাবে যে সমস্ত বাংলা শব্দের বানানরীতি পরিবর্তন করা হয়েছে, তার তালিকা

উপরোক্ত বানানরীতির পিডিএফ কপি পাওয়া যাবে এখানে।

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে লাইক ও শেয়ার করুন, প্লিজ।
গেজেটের নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের এ ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে রাখুন।




1 টি মন্তব্য:

pollux থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.