বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পদায়ন নীতিমালা || Posting Policy of BCS (Administration) cadre officers - সকল গেজেট এক ঠিকানায় || All gazettes are in one site.

বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পদায়ন নীতিমালা || Posting Policy of BCS (Administration) cadre officers


বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পদায়ন নীতিমালা || Posting Policy of BCS (Administration) cadre officers বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পদায়ন নীতিমালা। সম্মানীত ভিজিটর, সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন চিঠি-পত্র সমৃদ্ধ বাংলা ব্লগ সাইটে আপনাকে স্বাগত জানাচ্ছি অনুগ্রহপূর্বক, পোস্টটি শেষ পর্যন্ত দেখুন
প্রিয় পাঠক, আপনি যদি আমার এই অলগেজেটস ডট কম সাইটে নতুন এসে থাকেন; তাহলে, সাইটে প্রতিনিয়ত প্রকাশিত নতুন পোষ্টের আপডেট পেতে-প্লিজ, সাইটের ফেসবুক পেজে” লাইক দিয়ে সাইটটির
সঙ্গেই থাকুন। আর যদি ইতোমধ্যে আপনি “ফেজবুক পেজে” লাইক দিয়ে থাকেন, তাহলে আপনাকে আবারও স্বাগত জানাচ্ছি বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রজ্ঞাপন ও চিঠি-পত্র একত্রে, একসঙ্গে পাবার এ পাঠকপ্রিয় বাংলাদেশী বাংলা ব্লগে। আশা করি, পরবর্তীতে আবারও এসে ধন্য করবেন “সকল গেজেট এক ঠিকানায়” শিরোনামের এ বাংলা ব্লগে।






পাঠক, আপনাদের সকলের চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে এ ব্লগে আয়োজন করেছি-প্রাথমিক শিক্ষার অফিস আদেশ ও পত্র, প্রাথমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, উচ্চ শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, শিক্ষকদের বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, শিক্ষকদের পেশাগত প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রজ্ঞাপন ও পত্র, পাঠ্য বইয়ের ই-সংষ্করণ, ধর্মীয় ই-বুকসমূহ, আইন ও বিধিমালার ই-বুকসমূহ, জাতীয় পরিচয় পত্র বিষয়ক প্রজ্ঞাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের প্রজ্ঞাপন ও পত্র, জাতীয় বেতন স্কেলসমূহ, বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার প্রজ্ঞাপন ও পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি-বেসরকারি গুরূত্বপূর্ণ গেজেট, পরিপত্র ও পত্রাদি। এবার আসা যাক, আজকের পোষ্টের কথায়।

--------------------------------------------------
আরও দেখুন-          
--------------------------------------------------

বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের পদায়ন নীতিমালা।



গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে ৯ নভেম্বর, ২০১৫ খ্রি: তারিখে বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাদের জন্য পদায়ন নীতিমালা জারি করা হয়েছে।


বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাগণের পেশাগত দক্ষতা বৃদ্ধি, অভিজ্ঞতা অর্জন এবং কর্মসম্পাদনে গতিশীলতা আনয়ন ও মানসম্মত জনসেবা নিশ্চিতকরণের লক্ষ্যে সরকার নিম্নরূপ পদায়ন নীতিমালা জারি করছে। কর্মকর্তাগণকে মাঠ ও কেন্দ্রীয় পর্যায়ে পদায়নের ক্ষেত্রে সাধারণভাবে এ নীতিমালা অনুসরণ করা হবে।



০২। সহকারী কমিশনার (শিক্ষানবিশ)

ক. বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারে নবযোগদানকৃত সহকারী কমিশনারগণকে নিজ বিভাগ ব্যতীত অন্য যে কোনো বিভাগে পদায়ন করা হবে;
খ. শিক্ষানবিশকালে কোনো কর্মকর্তাকে বদলি করা হবে না। তবে শুধু অনিবার্য প্রশাসনিক কারণে কোনো কর্মকর্তাকে একই বিভাগের আওতাধীন অন্য কোনো জেলায় বদলি করা যাবে। 

০৩। সহকারী কমিশনার (ভুমি)
ক. চাকরির মেয়াদ ০২(দুই) বছর পূর্তি এবং চাকরি স্থায়ীকরণের পর জ্যেষ্ঠতার ক্রম অনুসরণ করে বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের কর্মকর্তাগণকে সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে পদায়ন করা হবে। সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিসেবে একজন কর্মকর্তা অন্যূন ০২(দুই) বছর দায়িত্ব পালন করবেন;
খ. সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর পদ হতে প্রত্যাহারের পর সহকারী কমিশনার/সিনিয়র সহকারী কমিশনার পদে বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়/জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে দায়িত্ব পালনের জন্য কর্মকর্তাগণকে বিভিন্ন বিভাগে ন্যস্ত করা হবে। 

০৪। উপজেলা নির্বাহী অফিসার





ক, সিনিয়র স্কেল প্রাপ্তি এবং চাকরির মেয়াদ কমপক্ষে ০৬(ছয়) বছর পূর্ণ হওয়ার পর একজন কর্মকর্তাকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়নের নিমিত্ত যোগ্য কর্মকর্তাদের তালিকায় (ফিটলিস্ট) অন্তর্ভুক্তির জন্য বিবেচনা করা হবে;
খ. তালিকাভুক্ত একজন কর্মকর্তাকে তাঁর নিজ বিভাগ ব্যতীত অন্য কোন বিভাগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়নের জন্য ন্যস্ত করা হবে। কোন কর্মকর্তাকে তাঁর স্বামী বা স্ত্রী'র জেলায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে পদায়ন করা যাবে না;
গ. উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে কোনো কর্মকর্তার কর্মকাল হবে অন্যন ০২(দুই) বছর।

০৫। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক/সিনিয়র সহকারী সচিব
ক. সহকারী কমিশনার, সহকারী কমিশনার (ভূমি), সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে চাকরির অভিজ্ঞতা এবং মোট চাকরিকাল কমপক্ষে ০৮(আট) বছর পূর্তির পর কর্মকর্তাগণকে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদায়ন করা হবে;
খ. অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে পদায়নের পূর্বে যোগ্য কর্মকর্তাদের তালিকা (ফিটলিস্ট) প্রণয়ন করা হবে এবং তালিকাভুক্ত কর্মকর্তাগণকে সাধারণত নিজ বিভাগ ব্যতীত অন্য বিভাগে এবং স্বামী/স্ত্রীর নিজ জেলা ব্যতীত অন্য জেলায় পদায়ন করা হবে;
গ. অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে কোনো কর্মকর্তার কর্মকাল হবে অন্যূন ০২(দুই) বছর; 
ঘ. মাঠ পর্যায়ে ন্যূনতম ০৫(পাঁচ) বছরের কাজের অভিজ্ঞতা ব্যতীত কোনো কর্মকর্তা মন্ত্রণালয়/ বিভাগে বা প্রেষণে কোনো পদে পদায়িত হবেন না। এ শর্ত ০১/০৭/২০০৬ খ্রি. তারিখে ও তৎপরবর্তীতে চাকরিতে যোগদানকৃত কর্মকর্তাদের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে। 

০৬। জেলা ও উপজেলায় পদায়ন
ক. মাঠ প্রশাসনে পদায়নের ক্ষেত্রে দেশের জেলাসমূহকে অবকাঠামোগত অবস্থা, শিক্ষা ব্যবস্থা, চিকিৎসা সংক্রান্ত সুবিধাদি, রাজধানী/বিভাগ/জেলা শহর হতে দূরত্ব ইত্যাদি বিবেচনায় তিনটি শ্রেণিতে ('ক', 'খ' এবং 'গ') এবং উপজেলাসমূহকে চারটি শ্রেণিতে ('ক', 'খ 'গ' এবং 'ঘ) বিন্যস্ত করা হল (পরিশিষ্ট-ক এবং খ);
খ. কর্মকর্তাগণকে জ্যেষ্ঠতা ও কর্মদক্ষতা বিবেচনায় বিভিন্ন শ্রেণির  জেলা/উপজেলায় পদায়ন করা হবে; 
গ. পার্বত্য ও অন্যান্য দুর্গম কর্মস্থলে সর্বোচ্চ কর্মকাল হবে ০২(দুই) বছর।

০৭। অন্যান্য

ক. কোনো কর্মকর্তাকে একই জেলায় একাধিকবার পদায়ন করা যাবে না। তবে শিক্ষানবিশকালে পদায়নকে নিয়মিত পদায়ন হিসেবে গণ্য করা হবে না;
খ. কোনাে কর্মকর্তার উচ্চশিক্ষার সুযােগ গ্রহণের ক্ষেত্রে কর্মরত পদে ন্যূনতম চাকরিকালের শর্ত শিথিল করা যাবে;
গ. কোনো কর্মকর্তার নিজের অথবা স্ত্রী/স্বামী/সন্তানের দুরারোগ্য ব্যাধির সুষ্ঠু চিকিৎসার স্বার্থে মেডিকেল বোর্ডের সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে নির্ধারিত মেয়াদের পূর্বে সুবিধাজনক স্থানে পদায়ন করা যাবে;
ঘ. কোনো কর্মকর্তার স্ত্রী/স্বামী উভয়েই চাকরিজীবী হলে একই কর্মস্থলে বা যথাসম্ভব নিকটবর্তী কর্মস্থলে পদায়নের বিষয়টি অগ্রাধিকার ভিত্তিতে বিবেচনা করা হবে।
ঙ, নিয়োগ/পদায়নের প্রজ্ঞাপনে বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদানের নির্দিষ্ট তারিখ উল্লেখ করা হবে। যৌক্তিক কারণ ব্যতীত নির্ধারিত তারিখের মধ্যে কোনো কর্মকর্তা তাঁর বদলিকৃত কর্মস্থলে যোগদান করতে ব্যর্থ হলে তা অসদাচারণ হিসেবে গণ্য হবে।
চ. চাকরি স্থায়ীকরণ এবং মাঠ প্রশাসনে চাকরি ৫(পাঁচ) বছর পূর্ণ হওয়ার পর কোন কর্মকর্তাকে মন্ত্রী। উপদেষ্টা/প্রতিমন্ত্রী/উপমন্ত্রী/সচিবের একান্ত সচিব/সহকারী একান্ত সচিব হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা যাবে।




পোস্টের নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুক পেজে  লাইক দিয়ে রাখুন


আর্টিকেলটি ভালো লাগলে নিচের ফেসবুক, টুইটার বা গুগল প্লাসে
শেয়ার করে আপনার টাইমলাইনে রেখে দিন। এতক্ষণ সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ।




কোন মন্তব্য নেই

pollux থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.