জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা-২০১৫: - সকল গেজেট এক ঠিকানায় || All gazettes are in one site.

জাতীয় তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা-২০১৫:



NICT Policy-www.allgazettes.com

জাতীয় তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা-২০১৫/National Information and Communication Technology Policy-2015. 
সম্মানিত পাঠক, পোস্টের মূল আলোচনায় যাবার আগে আপনাদের একটুখানি স্মরণ করিয়ে দিতে চাই “সকল গেজেট এক ঠিকানায়” শিরোনামের এ বাংলা ব্লগে আপনাদের জন্য আয়োজিত বিষয়বস্তুগুলোর মধ্যে রয়েছে-



পাঠক, আপনাদের সকলের চাহিদার প্রতি লক্ষ্য রেখে এ ব্লগে আয়োজন করেছি-প্রাথমিক শিক্ষার অফিস আদেশ ও পত্র, প্রাথমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন, মাধ্যমিক শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, উচ্চ শিক্ষার প্রজ্ঞাপন ও পত্র, শিক্ষকদের বিষয়ভিত্তিক প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, শিক্ষকদের পেশাগত প্রশিক্ষণ ও ম্যানুয়াল, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক প্রজ্ঞাপন ও পত্র, পাঠ্য বইয়ের ই-সংষ্করণ, ধর্মীয় ই-বুকসমূহ, আইন ও বিধিমালার ই-বুকসমূহ, জাতীয় পরিচয় পত্র বিষয়ক প্রজ্ঞাপন, জন্ম-মৃত্যু নিবন্ধনের প্রজ্ঞাপন ও পত্র, জাতীয় বেতন স্কেলসমূহ, বিভিন্ন আর্থিক সুবিধার প্রজ্ঞাপন ও পত্রসহ বিভিন্ন ধরনের সরকারি-বেসরকারি গুরূত্বপূর্ণ গেজেট, পরিপত্র ও পত্রাদি। এবার আসা যাক, আজকের পোষ্টের কথায়।


জাতীয় তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা-২০১৫/National Information and Communication Technology Policy-2015.


কৌশলগত বিষয়বস্তু ১১:অর্থনৈতিক বৈষম্য এবং ডিজিটাল ডিভাইড দূর করে 

(ক) নিন্ম আয়ের সম্প্রদায়, 


(খ) অনগ্রসরজনগোষ্ঠী, 

(গ) নারী এবং 

(ঘ) প্রতিবন্ধী ও বিশেষ সহায়তা প্রয়োজন
এমন ব্যক্তিদের মাঝে সেতুবন্ধন রচনা করে অনগ্রসর গোষ্ঠীভুক্তদের মূলধারার সামাজিক সুযোগ-সুবিধা প্ৰদান।

ক্রমিক নং **৩
করণীয় বিষয়: সরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোতে জনগণের|প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, নাগরিকদের ব্যয় কমবে এবং সময়ের সকল সিটি কর্পোরেশন, সকল সেবা স্থাপন। সংশ্লিষ্ট সেবাদানকারী মন্ত্রণালয়/বিভাগ কাৰ্যালয়, জেলা পরিষদে সকল পৌরসভা এবং প্ৰতিষ্ঠানের পরিবর্তে কল সেন্টারের হেল্প ডেস্ক ও কল সেন্টার|উপজেলা পরিষদে মাধ্যমে এ কাজ সম্পাদিত হতে স্থাপন; হেল্প ডেস্ক ও কল পারে। এসব কল সেন্টারের জন্য সেন্টার সহ টোল ফ্রি টেলিযোগাযোগ সেবা প্ৰদানকারী সুবিধা প্রবর্তন; প্রতিষ্ঠান কতৃক স্বল্প মূল্যে অথবা টোল-ফ্রি নম্বর সুবিধা প্ৰদান।

প্রাথমিক বাস্তবায়নকারী: প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, মন্ত্রী পরিষদ বিভাগ, সকল মন্ত্রণালয়/বিভাগ।

প্রত্যাশিত ফলাফল: নাগরিকদের ব্যয় কমবে এবং সময়ের সাশ্রয় হবে।

স্বল্প মেয়াদী: সকল সিটি কর্পোরেশন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়, জেলা পরিষদে হেল্প ডেস্ক ও কল সেন্টার স্থাপন।

মধ্য মেয়াদী: সকল সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান, স
কল পৌরসভা ও উপজেলা পরিষদে হেল্প ডেস্ক ও কল সেন্টারসহ টোল ফ্রি সুবিধা প্রদান।


ক্রমিক নং **৩

করণীয় বিষয়: 

(ক) ন্যাশনাল পপুলেশন রেজিস্টার| (NPR) প্ৰণয়ন। ভোটার আইডি। করা যেতে পারে। এনপিআর-এর সাথে স্ব স্ব বিভাগের বিভাগীয় রেজিস্টার তৈরী করণ।


(খ) এনপিআর-ভিত্তিক সমন্বিত জাতীয় পরিচয়পত্র প্রবর্তন এবং তা নাগরিক সেবা প্ৰদান এবং সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণ।



প্রাথমিক বাস্তবায়নকারী: বাংলাদেশ পরিসংখ্যান ব্যুরো, নির্বাচন কমিশন, সকল মন্ত্রণালয়।








পোস্টের নিয়মিত আপডেট পেতে আমাদের ফেসবুকপেজে লাইক দিয়ে রাখুন।

আর্টিকেলটি ভালো লাগলে নিচের ফেসবুক, টুইটার বা গুগল প্লাসে
শেয়ার করে আপনার টাইমলাইনে রেখে দিন। এতক্ষণ সঙ্গে থাকার জন্য ধন্যবাদ।

কোন মন্তব্য নেই

pollux থেকে নেওয়া থিমের ছবিগুলি. Blogger দ্বারা পরিচালিত.